শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৫:৫২:১০ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
রবিবার, ২৮ আগস্ট, ২০১৬, ০৭:৫২:৩৫
Zoom In Zoom Out No icon

যে মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জিনসহ সবাই নারী

যে মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জিনসহ সবাই নারী

বিচিত্র ডেস্ক: ছোটখাটো একটা ইতিহাসই রচনা হলো ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনে। স্ক্যান্ডিনেভিয়া অঞ্চলের প্রথম নারী পরিচালিত মসজিদের কার্যক্রম শুরু হলো সেখানে। মসজিদটির নাম ‘মরিয়াম মসজিদ’।

বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ২২.৩২ শতাংশ ইসলাম ধর্মের অনুসারী। কিন্তু মুসলমান নারীদের জন্য নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা রয়েছে এমন মসজিদের সংখ্যা খুবই কম। আর নারী পরিচালিত মসজিদের সংখ্যা তো নেহাতই হাতে গোনা। মুসলিম প্রধান দেশগুলোতেও যা বিরল। তবে মুসলিম প্রধান না হলেও ইউরোপের দেশ ডেনমার্কে কাযক্রম শুরু করল নারী পরিচালিত প্রথম মসজিদ।

নারী পরিচালিত মসজিদ মানে হচ্ছে সেখানে ইমাম ও মোয়াজ্জিনসহ সবাই নারী। সাধারণত পুরুষদের প্রবেশাধিকার সেখানে নিষিদ্ধ নয়। তবে জুমার নামাজে পুরুষরা সেখানে শরিক হতে পারবেন না। কেবল নারীরাই সেখানে নামাজ আদায় করতে পারবেন।

মসজিদটি প্রতিষ্ঠা করেছেন ড্যানিশ বংশোদ্ভূত মুসলিম নারী সেরিন খানকান। মসিজদের প্রথম আযানও তিনিই দিয়েছেন। এছাড়াও খুতবাও পাঠ করেছেন সেরিন। নামাজের ইমামতি করেছেন আরেক নারী। তার নাম সালিহা মেরি ফাত্তাহ। প্রায় ৬০ নারী ওই দিন মরিয়াম মসজিদে জুমার নামাজে শরিক হয়েছিলেন।

চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতে মুসল্লি নারীদের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছিল মরিয়াম মসজিদ। তবে এতদিন সেখানে নামাজ বা কোনো ধর্মীয় কার্যক্রম হয়নি। গত শুক্রবার (২৬ আগস্ট) জুমার নামাজ আদায় করার মধ্য দিয়ে এই মসজিদের কাযক্রম শুরু হলো।

সেরিন জানিয়েছেন, ‘প্রথমে মসজিদটি নারী ও পুরুষ উভয়ের জন্যই তৈরি করার কথা ভাবলেও পরে মত পরিবর্তন করেছি। এই মসজিদ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে মূলত পুরুষতান্ত্রিক ইসলামি ব্যবস্থাকে চ্যালেঞ্জ করেই। ইসলামের ইতিহাসে নারীদেরও ইমামতি করার ঐতিহ্য রযেছে। কিন্তু নারীর প্রতি অবজ্ঞার কারণে তা এড়িয়ে যায় পুরুষরা। আমরা মূলত ইসলামের আধুনিক দৃষ্টিভঙ্গির আলোকেই এই মসজিদ চালু করেছি।’

নারী পরিচালিত এই মসজিদের বিষয়টিকে কোপেনহেগেনের মুসলিম জনগোষ্ঠীর একাংশ স্বাগত জানালেও আরেক অংশ সমালোচনা করেছে। বিশেষত জুমার নামাজসহ বিশেষ ক্ষেত্রে পুরুষদের প্রবেশাধিকার সেখানে নিষিদ্ধ করার বিষয়টিকে মেনে নিতে পারছেন না সমালোচকরা।

প্রসঙ্গত, নারী পরিচালিত মসজিদের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি দেখা যায় এশিয়ার দেশ চীনে। এছাড়া বিশ্বে এই ধরনের মাত্র কয়েকটি মসজিদ রয়েছে। এর একটি যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে। ব্রিটেনের ব্র্যাডফোর্ডেও এই ধরনের একটি মসজিদ প্রতিষ্ঠার প্রস্তাবনা বিবেচনায় রেখেছে সেখানকার মুসলিম নারী নেত্রীরা।

এ রকম আর ও খবর



বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি  .  জাতীয়  .  স্বাস্থ্য  .  দেশ  .  লাইফস্টাইল  .  ফিচার  .  বিচিত্র  .  আন্তর্জাতিক  .  রাজনীতি  .  শিক্ষাঙ্গন  .  খেলাধুলা  .  আইন-অপরাধ  .  বিনোদন  .  অর্থনীতি  .  প্রবাস  .  ধর্ম-দর্শন  .  কৃষি  .  রাজধানী  .  শিরোনাম  .  চাকরি
Publisher :
Copyright@2014.Developed by
Back to Top