বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ ১১:০৯:৫১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সোমবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৭, ০৮:৪৪:৪৬
Zoom In Zoom Out No icon

ময়মনসিংহের ত্রিশালে র‌্যাফেল ড্রয়ের নামে জুয়া

ময়মনসিংহের ত্রিশালে র‌্যাফেল ড্রয়ের নামে জুয়া

মেলায় র‌্যাফেল ড্রয়ের নামে ডিজিটাল জুয়া দেখতে মানুষের ভিড় ময়মনসিংহের ত্রিশালে দেশীয় হস্তশিল্প মেলায় র‌্যাফেল ড্রয়ের নামে চলছে জুয়া। র‌্যাফেল ড্রয়ের কোনও অনুমোদন না থাকলেও মেলাসহ বিভিন্ন এলাকায় মাইকিং করে বিক্রি করা হচ্ছে টিকিট। প্রতিটি টিকিট কিনতে হচ্ছে ২০ টাকায়। পুরস্কারের আশায় টিকিট কিনতে হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন শিক্ষার্থী, দিনমজুরসহ সর্বস্তরের মানুষ। র‌্যাফেল ড্র-এর কার্যক্রম সরাসরি সম্প্রচার করা হচ্ছে স্থানীয় ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্কে। গত ১১ দিন ধরে প্রকাশ্যে র‌্যাফেল ড্র চললেও ব্যবস্থা নিচ্ছে না প্রশাসন।  

র‌্যাফেল ড্রয়ের উপহার সামগ্রীস্থানীয়রা জানান, জেলা প্রশাসনের অনুমোদন নিয়ে ত্রিশাল পৌরসভার উদ্যোগে পৌর এলাকার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের নওদায় মাসব্যাপী দেশীয় হস্তশিল্প মেলা চলছে। গত ২৩ নভেম্বর জেলা প্রশাসকসহ স্থানীয় কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে মেলার উদ্বোধন হয়। মেলায় স্থান পেয়েছে স্থানীয় উদ্যোক্তাদের হস্তশিল্প ও কসমেটিকস স্টল, শিশুদের খেলার জন্য নানা রাইডস এবং দৈনিক উল্লাস নামে র‌্যাফেল ড্র। এছাড়াও শতাধিক অটোরিকশা ও ভ্যানে মাইকিং করে ত্রিশাল ছাড়াও পার্শ্ববর্তী ভালুকা ও ফুলবাড়িয়া উপজেলায় এই র‌্যাফেল ড্রয়ের টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত টিকিট বিক্রি শেষে রাত ১০টার পর র‌্যাফেল ড্রয়ের পুরস্কার কার্যক্রম স্থানীয় ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্কে সরাসরি সম্প্রচার করা হচ্ছে। সরাসরি সম্প্রচারের কারণেই র‌্যাফেল ড্রয়ের নামে ডিজিটাল জুয়া জনপ্রিয় হয়ে উঠছে বলে দাবি করেছেন স্থানীয়রা। বিষয়টি অবৈধ হলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন তারা।

ক্যাবল টিভিতে দেখানো হচ্ছে র‌্যাফেল ড্ররবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ত্রিশাল থানা মোড়ে গিয়ে দেখা যায়, ভ্যানের ওপর মোটরসাইকেল রেখে মেলার র‌্যাফেল ড্রয়ের টিকিট বিক্রি করছেন নয়ন মিয়া। তিনি জানান, র‌্যাফেল ড্রয়ে মানুষকে আগ্রহী করতেই ভ্যানের ওপর পুরস্কার হিসেবে মোটরসাইকেল রাখা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, রবিবারের জন্য র‌্যাফেল ড্রয়ে ৫১টি পুরস্কার রয়েছে। প্রথম পুরস্কার হিসেবে রয়েছে চার ভরি ওজনের স্বর্ণের গহনা সেট। এছাড়া মোটরসাইকেল, মোবাইল ফোনসহ বিভিন্ন পুরস্কার রয়েছে।

ভ্যানে বিক্রি করা হচ্ছে টিকিটত্রিশাল বাজারে ভ্যানে করে টিকিট বিক্রি করছেন নজরুল ইসলাম। তিনি জানান, মেলার শুরুতে প্রথম দিন তিনি ১৫টি টিকিট বিক্রি করেছিলেন। রবিবার রাত ৯টা পর্যন্ত প্রায় ৪০০ টিকিট বিক্রি করেছেন। যতই দিন যাচ্ছে টিকিট বিক্রি বাড়ছে। ড্রয়ের কার্যক্রম স্থানীয় ক্যাবল চ্যানেলে সরাসরি সম্প্রচার করায় এটি জনপ্রিয় হয়ে উঠছে বলে তিনি জানান।

স্থানীয় দরিরামপুর এলাকার বাসিন্দা আবু হানিফ জানান, সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত ত্রিশাল উপজেলার অলিগলিতে র‌্যাফেল ড্রয়ের টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। অনেকেই প্রতিদিন একাধিক টিকিট কিনছে পুরস্কারের লোভে। রাত ১০টার পর বিভিন্ন গলিতে মানুষ ভিড় জমায় টিভিতে সরাসরি র‌্যাফেল ড্রয়ের ফলাফল দেখার জন্য।

ত্রিশাল বাজারের কেয়া হোটেলের মালিক বাদল মিয়া জানান, তার হোটেলের পাঁচ কর্মচারী নিয়মিতই র‌্যাফেল ড্রয়ের টিকিট কিনছে। একেক জন ১০ থেকে ১৫টা পর্যন্ত টিকিট কিনলেও এখন পর্যন্ত কোনও পুরস্কার পায়নি। র‌্যাফেল ড্রয়ের নামে এটি জুয়া ছাড়া আর কিছুই না।

ত্রিশাল কেয়া হোটেল কর্মচারী ওয়াসিম জানান, তিনি প্রতিদিন হোটেলে কাজ করে ৩০০ টাকা পান। এই টাকা থেকে প্রতিদিনই ১০ থেকে ১২টা টিকিট কিনছেন। মোটরসাইকেলের আশায় তিনি টিকিট কিনছেন বলে জানান।

 
মেলার আয়োজক ও ত্রিশাল পৌরসভার প্যানেল মেয়র মেহেদি হাসান নাছিম জানান, জেলা প্রশাসনের অনুমোদন নিয়েই মেলা চালানো হচ্ছে। র‌্যাফেল ড্র সীমিত আকারে চলছে দাবি করে তিনি বলেন, ‘এটাকে কোনোভাবেই জুয়া বলা যাবে না।’

ত্রিশাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকিউর রহমান জানান, র‌্যাফেল ড্র চলছে। তবে এ জন্য আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে না। তারপরও বিষয়টি অবৈধ হওয়ায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক মো. খলিলুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, জুয়া, অশ্লীল নৃত্য পরিবেশনে নিষেধাজ্ঞাসহ সাতটি শর্তে ত্রিশাল পৌরসভা কর্তৃপক্ষকে দেশীয় হস্ত শিল্পা মেলার জন্য এক মাসের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। র‌্যাফেল ড্র কিংবা জুয়ার কোনও অনুমোদন দেওয়া হয়নি উল্লেখ করে জেলা প্রশাসক বলেন, ‘শর্ত মানা না হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’সূত্র: টিবিউন

এ রকম আর ও খবর



বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি  .  জাতীয়  .  স্বাস্থ্য  .  দেশ  .  লাইফস্টাইল  .  ফিচার  .  বিচিত্র  .  আন্তর্জাতিক  .  রাজনীতি  .  শিক্ষাঙ্গন  .  খেলাধুলা  .  আইন-অপরাধ  .  বিনোদন  .  অর্থনীতি  .  প্রবাস  .  ধর্ম-দর্শন  .  কৃষি  .  রাজধানী  .  শিরোনাম  .  চাকরি
Publisher :
Copyright@2014.Developed by
Back to Top