রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ ০১:২০:৩৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
রবিবার, ২৮ আগস্ট, ২০১৬, ১০:০৫:১২
Zoom In Zoom Out No icon

শিগগিরই ব্রিটিশ কাউন্সিলের কার্যক্রম শুরু হবে

শিগগিরই ব্রিটিশ কাউন্সিলের কার্যক্রম শুরু হবে

ঢাকা: ব্রিটিশ কাউন্সিল অফিস স্থাপনার নির্মাণ কাজের সংস্কারের জন্য সাময়িকভাবে কার্যক্রম স্থগিত রয়েছে জানিয়েছেন বাংলাদেশে সফররত যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ররি স্টুয়ার্ট। রোববার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে সাক্ষাৎকালে তিনি এ সব তথ্য জানান।

 
তিনি জানান, ব্রিটিশ কাউন্সিল অফিস স্থাপনার নির্মাণ কাজের সংস্কারের জন্য সাময়িকভাবে কার্যক্রম স্থগিত রয়েছে। সংস্কার কাজ শেষে হলে তারা (ব্রিটিশ কাউন্সিল) শিগগিরই সকল কাযক্রম পূর্ণভাবে আবার শুরু করবে।  
  
বৈঠককালে বন্ধুপ্রতীম দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা জোরদার করার বিপুল সম্ভাবনা ও সম্পর্কের ঐতিহাসিক দিকগুলো তুলে ধরেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।
 
সফররত ব্রিটিশমন্ত্রী উল্লেখ করেন, বাংলাদেশের বৃহত্তম উন্নয়নে প্রতি বছর ৩৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহযোগিতা দিচ্ছে যুক্তরাজ্য।
 
এ সময় বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক, দারিদ্র্য বিমোচন, খাদ্য নিরাপত্তা, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও স্যানিটেশন ব্যবস্থার অগ্রগতির প্রশংসা করেন যুক্তরাজ্যের উন্নয়ন বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী।
 
নির্দিষ্ট সময়ে বাংলাদেশর প্রবৃদ্ধি, সামষ্টিক অর্থনৈতিক উন্নয়ন, মুদ্রাস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ, স্থিতিশীল মুদ্রা মৌলিক ভাবে স্মরণীয় বলে উল্লেখ করেন তিনি।
 
যুক্তরাজ্য বাংলাদেশের তৃতীয় বৃহত্তম রফতানির গন্তব্য বলে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাজ্য বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে অন্যতম।
 
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ বিষয়ক বাণিজ্য দূত রুশনারা আলীর চলতি বছরের শেষের দিকে বাংলাদেশ সফরকালে যুক্তরাজ্যের শিল্প-বাণিজ্য প্রতিনিধি দল বাংলাদেশে পাঠাতে সফররত ব্রিটিশ মন্ত্রীকে আহ্বান জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। যাতে বাংলাদেশের দ্রুত বর্ধনশীল ও প্রতিযোগিতামূলক অর্থনৈতিক খাতে সুযোগ-সুবিধা সম্পর্কে যুক্তরাজ্যের শিল্পগোষ্ঠী ধারণা গ্রহণ করতে পারেন।
 
এ ক্ষেত্রে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিল্পায়ন পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার প্রক্রিয়ায় যুক্তরাজ্যের ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগ করার সুযোগ নিতে উৎসাহিত করতে মন্ত্রীকে আহ্বান জানান।
 
সহযোগিতা ও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক জোরদারের জন্য মূল উপাদান হিসেবে বাণিজ্যের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন তিনি এবং বেক্সিট সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের পর শুল্ক মুক্ত বাণিজ্য সুবিধা অব্যাহত রাখতে যুক্তরাজ্যের প্রতিমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এ রকম আর ও খবর



বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি  .  জাতীয়  .  স্বাস্থ্য  .  দেশ  .  লাইফস্টাইল  .  ফিচার  .  বিচিত্র  .  আন্তর্জাতিক  .  রাজনীতি  .  শিক্ষাঙ্গন  .  খেলাধুলা  .  আইন-অপরাধ  .  বিনোদন  .  অর্থনীতি  .  প্রবাস  .  ধর্ম-দর্শন  .  কৃষি  .  রাজধানী  .  শিরোনাম  .  চাকরি
Publisher :
Copyright@2014.Developed by
Back to Top