বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯ ০৪:০৭:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
মঙ্গলবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯, ১০:২৮:০২
Zoom In Zoom Out No icon

দু’পক্ষকে খুশি করতেই ইজতেমা চার দিন

দু’পক্ষকে খুশি করতেই ইজতেমা চার দিন

তাবলীগের দু গ্রুপ দুদিন করে চার দিন ইজতেমার ময়দানে ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতা পালন করবে ।ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন । তাবলীগ জামায়াতের চলমান সমস্যা সমাধান ও আগামী বিশ্ব ইজতেমা কোন পক্ষ আখেরি মুনাজাত পরিচালনা করবে ? তা নিয়ে আজ মঙ্গলবার ধর্ম মন্ত্রণালয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় ।


ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ  তাবলীগের দু পক্ষের সমস্যা সমাধানে সিনিয়র নেতাদের নিয়ে বৈঠকে বসেন । এতে উপস্থিত ছিলেন সা’দ পন্থীদের পক্ষে সৈয়দ ওয়াসিফ ইসলাম ও সা’দ বিরোধীদের প্রতিনিধি মাওলানা জুবায়ের হোসেন ।

 বৈঠক সুত্রে জানা গেছে দু পক্ষকে সন্তুষ্ট রাখতে পূর্বঘোষিত তিন দিনের ইজতেমাকে চার দিন করা হয় ।  প্রথম দু দিন ইজতেমায় নেতৃত্ব দেবেন  সা’দ বিরোধিদের পক্ষে মাওলানা জুবায়ের রহমান ও শেষ দুদিন সা’দ পন্থি নেতা সৈয়দ ও্যাসিফ ইসলাম ।


কিন্তু ইজতেমায় আখেরি মুনাজাত কোন পক্ষ পরিচালনা করবে তা নিয়ে চূড়ান্ত কো্ন সিদ্ধান্ত হয়নি । সরকারেও কোন হস্তক্ষেপ করে চায়নি ।

সরকার আশা করছে ইজতেমার ময়দানে বয়ান শুনে উপস্থিত তাবলীগ মুরুব্বীগণ আখেরী মুনজাত পরিচালনা কারী ঠিক করবেন।  এর আগে গত ২৪ জানুয়ারি ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ  তাবলীগের দু গ্রুপের সিনিয়র নেতাদের  নিয়ে বৈঠকে বসে ১৫ থকে ১৭ ফেব্রুয়ারি ইজতেমার তারিখ চূড়ান্ত করেন  ।

 

এদিন মন্ত্রি বলেন  , বিগত বছর বুই পর্বে ভাগ করে দেশের ৬৪ জেলার মানুষের  জন্য ইজতেমা মাঠের ব্যবস্থা করা হলে এবার এক পর্বেই এ সম্পন্ন হতে যাচ্ছে  ।
ধর্ম মন্ত্রি  বলেন, কিছুদিন থেকে একটি মহল বিভিন্ন ভাবে ইজতেমাকে ভাগাভাগি করার চেষ্টা করছে ।

 মন্ত্রি বলেন. কোন ভাবে এটা হতে দেয়া যাবেনা । গতবছরেও এমনটা হয়েছিলো । আমারা তা সফলতার সাথে নিবৃত্ত করতে সক্ষম হয়েছি ।
এবার দুরত্ব অনেক বেশি এবং শক্ত হয়েছে । শক্ত কারণ গুলোর জট খুলতে আমাদের একটু শক্ত হতে হচ্ছে । দু’ পক্ষকে এক জায়গায়  বসাতে সক্ষম হয়েছি , যাতে এক জায়গায় করতে পারি । এ জন্য সরকার কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করবে ।

 

 

 

সেদিন তিনি আরও বলেন, কয়েক দিন আগে নির্বাচনে জয়ী হলো সরকার, প্রথম কাজটাই যদি হয় তাবলিগ জামাতের ইজতেমা হচ্ছে না, নিন্দুকের তো আর অভাব নেই। বলবে যে তাবলিগটাই ভেঙে দিয়েছে। এর সঙ্গে সরকারের ইমেজ জড়িত। তাবলিগ-জামাত হতে হবে, একসঙ্গে হতে হবে। এটা প্রধানমন্ত্রীর ইমেজের সঙ্গে জড়িত।

 

প্রতিমন্ত্রী সেদিন বলেন, আজকে সবাই একমত যে, ১৫-১৭ ফেব্রুয়ারি একত্রে টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা হবে। তবে কিছু কিছু কথা আছে সে কারণে আবারও একসঙ্গে বসতে হবে।

নেশননিউজ/রেজোয়ান

এ রকম আর ও খবর



বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি  .  জাতীয়  .  স্বাস্থ্য  .  দেশ  .  লাইফস্টাইল  .  ফিচার  .  বিচিত্র  .  আন্তর্জাতিক  .  রাজনীতি  .  শিক্ষাঙ্গন  .  খেলাধুলা  .  আইন-অপরাধ  .  বিনোদন  .  অর্থনীতি  .  প্রবাস  .  ধর্ম-দর্শন  .  কৃষি  .  রাজধানী  .  শিরোনাম  .  চাকরি
Publisher :
Copyright@2014.Developed by
Back to Top