Nationnews24.com | Leading bangla online newsporlal in bangladesh.
ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড’উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
বুধবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৭ ০৭:৩১ পূর্বাহ্ন
Nationnews24.com | Leading bangla online newsporlal in bangladesh.

Nationnews24.com | Leading bangla online newsporlal in bangladesh.

চার দিনব্যাপী তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিষয়ক মেগা ইভেন্ট ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭’ এর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ইভেন্টটি শুরু হয়েছে। তথ্য প্রযুক্তি (আইটি) খাতে সম্ভাবনার দুয়ার খোলার লক্ষ্যে এ অনুষ্ঠানে প্রযুক্তিভিত্তিক উদ্ভাবন ও অর্জন তুলে ধরা হবে।

কয়েকটি আইটি সংগঠনের সহযোগিতায় আইসিটি বিভাগ ও বেসিস ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭’-এর আয়োজন করেছে, যার প্রতিপাদ্য হচ্ছে- ‘রেডি ফর টুমরো’। গত ৯ বছরেরও বেশি সময়ে আইসিটি সেক্টরে বাংলাদেশের যে অর্জন তা নিয়ে বাংলাদেশ আগামীর জন্য প্রস্তুত বলে এবছরের প্রতিপাদ্যে ইঙ্গিত করা হয়েছে।

১)প্রদর্শনীতে যা থাকছে

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের এবারের আয়োজনে বিভিন্ন পণ্য, সেবা ও উদ্ভাবন নিয়ে হাজির হবে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। ক্যাটাগরিভেদে প্রদর্শনীতে থাকবে আটটি জোন।

সফটওয়্যার শোকেসিং জোনে দেশীয় সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর তৈরি বিভিন্ন সফটওয়্যার ও সেবার তথ্য তুলে ধরা হবে। বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সরকারি প্রতিষ্ঠান তাদের সেবা নাগরিকদের হাতের নাগালে পৌঁছে দিতে বিভিন্ন উদ্ভাবন নিয়ে কাজ করছে। তাদের উদ্ভাবনী সেবা সংক্রান্ত সকল তথ্য মিলবে ই-গভর্নেন্স জোনে।
কেনাকাটা করার জন্য এখন অনেকেই বেছে নেন বিভিন্ন ই-কমার্স সাইট। শুধু পণ্য নয়, অনেক ই-কমার্স সাইট থেকে পাওয়া যাচ্ছে নিত্যদিনের নানা সেবা। ধারণা করা হচ্ছে, সামনের দিনগুলোতে অর্থনীতির বড় একটি অংশ দখল করে নেবে ই-কমার্স। আর এ জন্য ই-কমার্স সাইটগুলো কীভাবে সামনে এগোচ্ছে, কতটা উদ্ভাবনী উপায়ে তারা তাদের সেবা দিচ্ছে, এসব বিষয় জানা যাবে ই-কমার্স জোন থেকে।
গেমারদের জন্যও থাকছে আলাদা একটি জোন। গেমিং হার্ডওয়্যার, কনসোল, দ্রুতগতির ইন্টারনেট সংবলিত এ জোনে গেমাররা নিবন্ধন সাপেক্ষে হারিয়ে যেতে পারবেন গেমিংয়ের ভুবনে।

নতুন উদ্যোক্তাদের জন্যও এখানে থাকবে আলাদা একটি জোন। উদ্যোক্তারা তাদের পণ্য বা সেবার প্রোটোটাইপ এখানে আগত দর্শনার্থীদের সামনে তুলে ধরতে পারবেন সহজেই। এছাড়া বিনিয়োগকারী ও নীতিনির্ধারক পর্যায়ের অনেকেই এখানে আসবেন। ফলে উদ্যোক্তারা খুব সহজেই তাদের সামনে এগিয়ে যাওয়ার পথ খুঁজে নিতে পারবেন এখান থেকেই।
মোবাইল অ্যাপ ও গেম নিয়ে কাজ করছে অনেক প্রতিষ্ঠান। এছাড়া ব্যক্তি উদ্যোগেও অনেক তরুণ এই খাতে কাজ করছে। মোবাইল ইনোভেশন জোনে তাদের তৈরি বিভিন্ন গেম ও অ্যাপ প্রদর্শন করা হবে।
বাংলাদেশে তৈরি বিভিন্ন পণ্য ও সেবা সবার সামনে তুলে ধরার জন্য এবার থাকবে ‘মেড ইন বাংলাদেশ প্রডাক্ট শোকেস’ নামে আলাদা একটি জোন।

২)কনফারেন্স

চার দিনের এ আয়োজনে অনুষ্ঠিত হবে মোট তিনটি কনফারেন্স। ৬ ডিসেম্বর দুপুর ২.৩০টা থেকে সন্ধ্যা ৭.৩০টা পর্যন্ত চলবে অ্যাপ ও গেমিং কনফারেন্স যেখানে আলোচনা করা হবে এই খাতের সম্ভাবনা ও ক্যারিয়ার সম্পর্কে। দ্বিতীয় দিন অর্থাৎ ৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ফোর্থ ইন্ডাস্ট্রিয়াল রেভোলিউশন বিষয়ক একটি মিনিস্টারিয়াল কনফারেন্স। এছাড়া তৃতীয় দিন অনুষ্ঠিত হবে ডেভেলপার কনফারেন্স।

৩)অন্যান্য সেশন

আয়োজনের প্রথম দিনে অনুষ্ঠিত হবে মোট ৮টি সেশন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো টেক টক উইথ সোফিয়া, উইমেন ইন ডিজিটাল ইকোনোমি, পেমেন্ট সার্ভিসেস: অপরচুনিটিজ অ্যান্ড চ্যালেঞ্জেস, গ্রো ইয়োর বিজনেস ইউজিং ফেসবুক/ক্লাউড সার্ভিসেস, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স: লেভারেজিং ই-গভর্নেন্স উইথ চ্যাটবট।
দ্বিতীয় দিনের ১২টি সেশনের মধ্যে উল্লেখযোগ্য সেশনগুলো হলো- হাই স্কুল প্রোগ্রামার কনফারেন্স, মিট নাফিস বিন জাফর, স্টার্টআপ বাংলাদেশ, অপরচুনিটি ফর ইনভেস্টরস অ্যান্ড স্টার্টআপস, সাইবার সিকিউরিটি রিস্কস, সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ইথিক্যাল হ্যাকিং, এমপ্লয়মেন্ট অব পারসনস নিউরোডেভেলপমেন্টাল ডিজঅ্যাবিলিটিজ ইন দ্য আইটি ইন্ডাস্ট্রি।
তৃতীয় দিনও থাকছে আউটসোর্সিং ও সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক একাধিক সেশন। এছাড়া অনুষ্ঠিত হবে চিলড্রেন্স ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড, ৫ বিলিয়ন ডলার এক্সপোর্ট, ওয়ার্কশপ অন ব্লকচেইন শীর্ষক সেমিনার ও কর্মশালা।
মেলার সমাপনী দিনে অনুষ্ঠিত হবে আইটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প। এছাড়া ডিজিটাল কারেন্সি ও ফিনটেক বিষয়ক একটি সেশনও থাকছে এদিন। আরও থাকছে ডিজিটাল মার্কেটিং বিষয়ক কর্মশালা এবং অগমেন্টেড ও ভার্চুয়াল রিয়েলিটি নিয়ে একটি বিশেষ সেশন।

৪)দেশের বাইরে থেকে অংশ নিচ্ছেন যারা

তিন শতাধিক বক্তা চার দিনের বিভিন্ন সেশনে অংশ নেবেন। এর মধ্যে ত্রিশ জনের বেশি বিদেশি বক্তা থাকবেন। ফেসবুক থেকে অংশ নেবেন পাবলিক পলিসি ডিরেক্টর শিবনাথ ঠাকুরাল, বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার খুশাগ্রা সাগর। এছাড়া থাকবেন দ্য ইন্দাস এন্ট্রারপ্রেনিয়ার (টাই) মিডওয়েস্টের সহ-প্রতিষ্ঠাতা নবনীত এস, প্রেসিডেন্ট বালা পালামাদাই, টাই হংকং’র পরিচালক ইমানুয়েল ব্রেইটার, টাই সিঙ্গাপুরের চেয়ারম্যান পুনিত পুশকারনা, টাই পুনে’র প্রেসিডেন্ট কিরণ দেশপাণ্ডে, টাই টম্পাবে অ্যাঞ্জেল ফান্ডের ম্যানেজিং মেম্বার কুণাল জৈন, টাই জার্মানির চেয়ারম্যান এক্সেল এঞ্জেলি, টাই দিল্লির চেয়ারম্যান এমিরেটাস সৌরভ শ্রীভাস্তুব।
আরও অংশ নেবেন জেএন ক্যাপিটাল অ্যান্ড গ্রোথ অ্যাডভাইজরির ব্যবস্থাপনা পরিচালক জেফরি নাহ, ড্রিম ইন পকেটের সিওও শিন সাটাকে, ইন্টেলেকচুয়াল প্রোপার্টি স্পেশালিষ্ট শিল্পী ঝাঁ এবং ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স কর্পোরেশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর ওয়েন্ডি জো ওয়ারনার।
প্রদর্শনীতে প্রবেশের জন্য আগে থেকেই অনলাইনে নিবন্ধন করা যাবে এই ওয়েবসাইট থেকে। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলবে এ আয়োজন।